খাদিজা ইভের দুটি কবিতা

0
417
views

অ্যাবস্ট্রাক্ট থিংস্
সোনারঙা হাসির ঝিলিকে উড়ে গেলো সব বাধা।
কিছুটা আগেও ছিলো থমথমে নীরবতা।
আগামী দিনের কথা থাক না কোনো ড্রয়ারে সাজানো,
বর্তমান শুধু বাতাসে উড়ে বেড়ানো কামিজ—
যা নেড়ে দিয়েছিলাম সন্ধ্যার ঘিনঘিনে আলোয়।

পড়ে থাকা অর্ধেক লেবুটাও জর্জরিত হচ্ছে দিনদিন—
ছত্রাকের প্রকোপ যেখানে ভয়াবহ।
কালের চাপে পড়ে থাকা তেলখোরেরা যখন ভেঙে যাচ্ছে—
তখনো কিছু তৈরি হচ্ছে আদরে আদরে।
সোনারঙা হাসির ঝিলিকে তখন উড়ে যায় সব বাধা।

একটা হাত নিয়ে যায় বহুদূরব্যাপী জনারণ্যে,
যেখানে বর্তমানের ভেতর দিয়ে আলোকে ধরে নেয় অনায়াসে।

আসা যাওয়ার পথে
কতবার তোকে অদৃশ্য চুম্বনে আহত করেছি
ঠোঁট নিয়েছে তার খোঁজ।

বহিরাগতদের স্থান নেই বলে ‘নো এন্ট্রি’ টাঙিয়ে দিয়েছিস বুকের কোণে।
ফিরে এসেও কোথায় যেন থেকে যাই অগোচরে।
অচেনা দেশের টানে যখন উদগ্রীব হয়ে আছিস—
তখনো ঘুমানোর আগে তোর ফেসবুকের ওয়াল ঘেটে নিই অনুমতি ছাড়া।

কাছে থাকবি না শুনে বারংবার ভেতরটা মোচড় দিয়ে ওঠে,
দমবন্ধ লাগে ইট-পাথরের এই চেনা শহরে।
তবে কি বোঝে গেছি আমি হারিয়েছি অনেক?

চুলের ঘ্রাণে যখন মাতাল হয়েছিস বহুবার,
প্রতিবার আমি নিজেকে ক্রুশবিদ্ধ করেছি।
শিখে নিয়েছি ফেইক হাসি হাসতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here