মেলায় দেড় শতাধিক মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক নতুন বই

0
83
views

সুতরাং ডেস্ক 
দেখতে দেখতে পনের দিকে গিয়ে পড়লো প্রাণের বইমেলা। এবারের একুশের গ্রন্থমেলায় স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক ইতিহাসের দেড় শতাধিক নতুন বই প্রকাশ পেয়েছে। গবেষণামূলক এইসব বইয়ের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধের আঞ্চলিক ইতিহাসের গ্রন্থও রয়েছে।

বাংলা একাডেমি সূত্রে জানা যায়, প্রতিবছরই মেলায় প্রকাশিত নতুন বই বাংলা একাডেমির তথ্যকেন্দ্রে জমা দেয়া হয়। এবারের মেলায় একাডেমির তথ্যকেন্দ্রে পনের দিনে ১ হাজার ১০২টি নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে। এর মধ্যে ১৭০টি বই হচ্ছে স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক। বিভিন্ন প্রকাশনা সংস্থার স্টলে এইসব বই বিক্রি হচ্ছে।

স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধ ইতিহাস বিষয়ে মেলায় প্রকাশিত উল্লেখযোগ্য বই হচ্ছে, আগামী প্রকাশনীর স্টলে এসেছে ড. মুনতাসীর মামুন সম্পাদিত ‘একাত্তরের বিজয় গাথা’, তারেক মাসুদ সম্পাদিত ‘মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র’, হারুন হাবীবের ‘জনযুদ্ধের উপাখ্যান’, ড. মোহাম্মদ হান্নানের ‘বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ: কিশোর ইতিহাস’, ড.শেখ গাউস মিয়ার ‘বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ: খুলনা জেলা’, বাংলা একাডেমির স্টলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘কারাগারের রোজনামচা’, শামসুজ্জামার খান সম্পাদিত ‘বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ: বহুমাত্রিক বিশ্লেষণ’, আবু সাঈদের ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ: কূটনৈতিক যুদ্ধ’, আমিনুর রহমান সুলতানের ‘বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস: ময়মনসিংহ’,কাকলী প্রকাশনীতে মেজর রফিকুল ইসলামের ‘শেখ মুজিব ও স্বাধীনতা সংগ্রাম’, গোলাম রব্বানীর ‘স্বাধীনতা’,চারুলিপিতে জাহানারা ইমামের ‘অব ব্লাড অ্যান্ড ফায়ার’, শব্দশৈলিতে ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিনীর ‘নিন্দিত নন্দন’, পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স হাবিবুর রহমানের ‘ মুক্তিযুদ্ধে প্রথম প্রতিরোধ’, সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলামের ‘আমাদের সাহিত্যে মুক্তিযুদ্ধ ও অন্যান্য প্রবন্ধ’, মাওলা ব্রাদার্সে আবুল মাল আবদুল মুহিতের ‘মুক্তিযুদ্ধের রচনাসমগ্র’, ড. আবদুল ওহাবের ‘বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ: ইতিহাস ও তত্ত্ব’।

মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি, লেখক, গবেষণ ও প্রকাশক মফিদুল হক বাসসকে বলেন, এটা খুবই আশার বিষয় যে, মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাসের বই মেলায় প্রকাশ পাচ্ছে। এবারের মেলায়ও অসংখ্য বই এসেছে। বিশেষ করে জেলাভিত্তিক মুক্তিযুদ্ধের বই এবারের মেলায় কয়েকটি প্রকাশ পেয়েছে। এমন কি ভাষা আন্দোলনে জেলার ইতিহাসও প্রকাশ পেয়েছে। ক্রমেই আমাদের ইতিহাসের বইয়ের ভিড়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্যসমৃদ্ধ বই প্রকাশিত হচ্ছে।

কথাসাহিত্যিক ও শিক্ষাবিদ সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলাম জানান, বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের উপর এতো বই প্রকাশ পেয়েছে, অন্য কোন দেশে এতো বই প্রকাশের নজির নেই। আমাদের লেখকরা এখনও লিখে চলেছেন ইতিহাস নিয়ে। এইভাবে এক সময় আমাদের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বইতে মোটামুটিভাবে পূর্ণাঙ্গ চিত্র উঠে আসবে বলে আমার বিশ্বাস।

বাংলা একাডেমির পরিচালক ও একুশের গ্রন্থমেলা উদযাপন কমিটির সদস্যসচিব ড. জালাল আহমেদ বলেন, এবারের মেলায় মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিষয়ে প্রায় ১৭০টি নতুন বই প্রকাশ পেয়েছে। অনেক প্রকাশনী তাদের বই একাডেমির তথ্যকেন্দ্রে জমা দেন না। সবাই তাদের বই জমা দিলে এই সংখ্যাটা আরও বড় হবে বলে তিনি জানান।

কথাসাহিত্যিক ও মুক্তিযোদ্ধা ইসহাক খান বলেন, যে কোন দেশের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস পুরোপুরি প্রকাশ পেতে অনেক বছর লেগে যায়। আমাদের দেশে লেখক ও গবেষকের সংখ্যা কম নয়। প্রতিবছরই মুক্তিযুদ্ধের ওপর অসংখ্য বই প্রকাশ পাচ্ছে। এ বছর এই সংখ্যাটা আরও বড়মাপের হবে বলে লক্ষ্য করা যাচ্ছে। সূত্র: বাসস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here